কম্পিউটারে বেশি এমবি কাটলে করণীয়

কম্পিউটারে ব্যবহার করি ১০ এমবি, কিন্তু কাটছে ১০০ এমবি। এমন কেন ভাই? Windows 10 এ বেশি এমবি কাটে কেন? ডাটা খরচ কমানোর উপায় কী ? নাকি সবসময় ল্যাপটপে বেশি এমবি কাটবে? আজ আমরা সকল প্রশ্নের উত্তর নিয়ে হাজির হয়েছি। শেষ পর্যন্ত পড়ুন, সব ক্লিয়ার হয়ে যাবেন।

বিশেষ করে যারা গ্রামে বা পাহাড়ি এলাকায় ইন্টারনেট চালান, তাদেরকে সীমিত এমবির উপর নির্ভরশীল হতে হয়। কারণ, সেখানে ইচ্ছেমত ডাটা ব্যবহারের জন্য ওয়াই-ফাই লাইন থাকেনা। উদাহরণ – আমি নিজেই। আমি পার্বত্য বান্দরবানের আলীকদম অঞ্চল থেকে লিখাটি লিখছি, কারণ আমাকেও এই সীমিত এমবি ব্য্যবহারের সমস্যায় পড়তে হয়েছে। যার ফলে কিভাবে কম্পিউটারে ডাটা খরচ কমাবো, সেটাও শিখতে হয়েছে। আসুন, বিস্তারিত জানা যাক।

কম্পিউটারে ডাটা খরচ কমানোর উপায়

১. মিটার কানেকশন সেট করুন ( Set Metered Connection )

আমরা প্রায় সকলেই মোবাইলের হটস্পট দিয়ে ল্যাপটপ বা কম্পিউটার চালাই। যারা এভাবে চালান তাদেরকে বলব যে, ওয়াই-ফাই কানেক্ট এর পর আপনার ল্যাপটপের ওয়াই-ফাই কানেকশনটিতে মিটার কানেকশন ( Metered Connection ) সেট করুন। Meter Connection সেট করলে, আপনি যা চালাবেন শুধু সেটার জন্যই এমবি খরচ হবে। এজন্য আপনাকে Wi-fi Settings > Manage Known Network > Properties > Set as Metered Connection এ গিয়ে সেট করতে হবে। ফলে আপনার কম্পিউটারে ডাটা খরচ আগের চাইতে অনেক কমে যাবে।

২. ব্যাকগ্রাউন্ড এপস বন্ধ করুন ( Close Background Apps )

মোবাইলেই মত কম্পিউটারেও কিছু এপস আছে, যেগুলো জন্মগতভাবেই চিরকাল চলতে থাকে। হ্যাঁ, আমি ব্যাকগ্রাউন্ড এপস এর কথা বলছি। আর এসব এপস এর বেশিরভাগই অকাজের এপস। তবে গুরুত্বপূর্ণ এপসও আছে। আমাদের এমবি যেহেতু সীমিত, তাই এসব এপস চলাটাও সীমিত করতে হবে। ব্যাকগ্রাউন্ড এপস বন্ধ করতে আপনাকে Search Box এ গিয়ে Background Apps লিখে সার্চ করতে হবে। তারপর একটি একটি করে অপ্রয়োজনীয় এপস বন্ধ করতে হবে। তবে মনের ভুলে জরুরী এপস বন্ধ করে ফেলিয়েন না।  

৩. অটো সিঙ্ক বন্ধ করুন ( Turn off Auto Sync )

Windows 10 Laptop / Computer এ আমরা অনেকে মেইলসহ নানা জিনিস সেট করি। যা সবসময় সিঙ্ক হতেই থাকে। এছাড়াও কম্পিউটারের নানা ফাংশনও নিয়মিত সিঙ্ক হতে থাকে। সিঙ্ক বলতে অটো রানিং বোঝায়। এক্ষেত্রে আপনি যদি অটো সিঙ্কিং বন্ধ করেন, তাহলে ডাটা খরচ অনেকটাই কমে যাবে। এজন্য আপনাকে Search Box এ Sync Your Settings লিখে গিয়ে অটো সিঙ্কিং বন্ধ করতে হবে।

৪. লাইভ টাইলস অফ করুন ( Turn off Live Tiles )

কম্পিউটার চালু করার পর উইন্ডোজ বা Start অপশনে অটমেটিক রানিং কিছু টাইল বা বক্স দেখতে পাবেন, যেমন – আবহাওয়ার সংবাদ ইত্যাদি। এসব বন্ধ করেও কম্পিউটারে এম্বি কাটা কমানো যায়। এজন্য আপনাকে সেসব টাইলসের উপরে মাউস নিয়ে Right Click > More > Turn Live Tile Off করে তা বন্ধ করতে হবে।

৫. উইন্ডোজ আপডেট বন্ধ করুন (Turn off Windows Update )

সবার শেষে পরিচয় করিয়ে দিচ্ছি উইন্ডোজ আপডেট এর সাথে। কারণ এটি হচ্ছে এমবি খাওয়ার এক্সপার্ট। ল্যাপটপে খরচ হওয়া বেশিরভাগ এমবি ইনিই খেয়ে শেষ করেন। আর উনাকে থামানও একটু কষ্টসাধ্য। কারণ একদিক দিয়ে থামালে, অন্যদিক দিয়ে উনি ঠিকঠাক এমবি খাওয়ার চেষ্টা চালাতে থাকেন। তবে আমি বলব, উনি অকাজে এমবি খান না, বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ আপডেট এর কাজেই উনি ডাটা খরচ করে থাকেন।

কিন্তু আমাদের এমবি যখন সীমিত, তখন Windows Update বন্ধ করতেই হবে। আসুন বন্ধ করার প্রসেসগুলো ছবির সাহায্যে জেনে নিই । যদিও অনেকভাবে তা বন্ধ করা যায়, আমি শুধু ২ ভাবে তা দেখাচ্ছি।

* নিচের ছবির মত করে সেটিংস আছে কিনা চেক করি। এজন্য আপনাকে Windows Update Settings > Advanced Option এ গিয়ে চেক করতে হবে। আর Pause Updates সেটিং এ আপনি যতদিন পর্যন্ত উইন্ডোজ আপডেট বন্ধ রাখতে চান, তা সিলেক্ট করে দিন। এটা আপডেট বন্ধ করার একটি সাধারন নিয়ম।

* এখন বলছি উইন্ডোজ আপডেট বন্ধ করার পরবর্তী নিয়ম। এজন্য আপনাকে Win+R চেপে Run এ গিয়ে services.msc লিখে Enter দিতে হবে। এরপর সেখান থেকে Windows Update খুঁজতে হবে। তারপর তার উপর ডাবল ক্লিক করে, Startup Type অপশনটি Disable করে দিতে হবে।

এছাড়াও আরো বিভিন্নভাবে আপডেট বন্ধ করা যায়, তবে তা আপনার কম্পিউটারের জন্য বিপদ ডেকে আনতে পারে। কারণ, অতি গুরুত্বপূর্ণ আপডেট বন্ধ করতে গিয়ে ক্র্যাক ভার্সনে ফেসে যাবার ভয় থাকে।  তাই আপনাদের বলব যে, উপরের কাজগুলো ব্যাতীত অন্যভাবে আপডেট বন্ধের আগে ভালভাবে জেনে নিবেন। আর এতে আমাদেরও সাহায্য নিতে পারেন।

শেষকথা –

আমি সিষ্টেম আপডেট বন্ধ করতে কাউকে পরামর্শ দিইনা, কারণ সিষ্টেম আপডেট আপনাকে কম্পিউটারের জন্য খুবই প্রয়োজনীয়। নতুন কম্পিউটার কিনলে বেশি এমবি যাওয়াটা স্বাভাবিক, কারণ এতে সিষ্টেমসহ অনেককিছুর আপডেট হয়ে থাকে। তাই নতুন কম্পিউটারে আপডেট বন্ধ না করাই ভাল।

আর আপনার জানা কোনো উপায় থাকলে আমাদের কমেন্ট করে জানাতে পারেন। লিখাটি চাইলে বন্ধুদেরও শেয়ার করতে পারেন। আমাদের ফেসবুক পেইজে জয়েন থাকুন।

Leave a Comment

somproti.com

FREE
VIEW