স্বামী-স্ত্রীর ঝগড়া; পরিশেষে ভালবাসা

একদিন এক লোক অফিস থেকে বাসায় ফিরল। বাসায় ফেরার পর তার মন-মেজাজ ভাল ছিলনা। তাই সে তার স্ত্রীর প্রতি খারাপ ব্যবহার করতে লাগল। এক পর্যায়ে লোকটি তার স্ত্রীর গায়ে হাত তুলল।

এতে তার স্ত্রী রাগ করে তার স্বামীকে বললো,

স্ত্রী – তোমার নামে আমি অভিযোগ জানাতে যাচ্ছি।

স্বামী – যাও তো দেখি, তোমাকে বাহিরে বের হবার পারমিশন কে দিবে?

স্ত্রী – আচ্ছা, নিজেকে তুমি কি মনে কর? তুমি কি আমাকে আটকাতে পারবে?

স্বামী – ঠিক আছে, দেখা যাক। তুমি যা ইচ্ছা করো। তোমার দৌড় কতটুকু, আজ আমিও দেখব।

একথা শোনার পর, লোকটির স্ত্রী সাথে সাথে বাথরুমে ঢুকলো। সেটা দেখে লোকটি চিন্তায় পরে গেলো। লোকটি ভাবল, তার স্ত্রী হয়তো বাথরুমের জানালা দিয়ে বাহিরে বের হবার চেষ্টা করছে। সেটা ভেবে লোকটি বাহিরে গিয়ে বাথরুমের পেছেনে গেলো। তারপর ভালোভাবে এদিক-সেদিক দেখলো। কিন্তু, লোকটি তেমন কিছু বুঝতে পারল না।

তাই কিছুক্ষন পর সে ঘরে এসে পড়ল। ঘরে এসে লোকটি দেখলো যে, তার স্ত্রী অযু করে বাথরুম থেকে বের হয়েছে। তারপর তার স্ত্রী তাকে উদ্দেশ্য করে বললো, “আমি তোমার নামে তার কাছেই অভিযোগ করব, যিনি আমাকে তোমার অর্ধাঙ্গিনী বানিয়েছেন। সেখানে তো তোমার কোনো দরজা-জানালা বা দেয়াল নেই, যাতে তুমি আমাকে বাধা দিতে পারো। তার দরজা অভিযোগ জানানোর জন্য সবসময়ই খোলা থাকে।”

একথা শুনে লোকটি আর কিছুই বললোনা। সে এবার সত্যি সত্যিই চিন্তায় পড়ে গেলো। আর ভাবতে লাগল, সত্যিই কি স্ত্রী আমার নামে তার নিকট গুরুতর অভিযোগ জানাবে!

লোকটির স্ত্রী নামাযে দাড়িয়ে গেলো। সে নামাযের মধ্যে দীর্ঘ সিজদাহ করলো। এমন দীর্ঘ সেজদাহ দিয়েছিল যে, তা যেনো শেষ হচ্ছিল না। অনেকক্ষন পর তার সালাত শেষ হলো।

সালাত শেষে তার স্ত্রী যখন দু’হাত তুললো, তখন লোকটি স্ত্রীর হাত ধরে ফেললো। আর বললো, “সেজদায় আমার জন্য যে পরিমান অভিযোগ করেছো, তা কি যতেষ্ঠ নয়? আল্লাহর কসম বলছি, আমি তোমার সাথে রাগারাগি অনিচ্ছাকৃতভাবে করেছি। তুমি আর আল্লাহর নিকট অভিযোগ করোনা প্লিজ!”

তখন স্ত্রী স্বামীর দিকে তাকিয়ে, মুচকি হেসে বললো, “আমি তোমার জন্য অভিযোগ করিনি। আমি অভিযোগ করেছি শয়তানের জন্য। আমি কি এতই বোকা যে, নিজের স্বামীর জন্য অভিযোগ করবো? যাকে আমি আমার জীবনের চেয়েও বেশি ভালোবাসি।”

লোকটি স্ত্রীর কথাগুলো শোনার পর, চোখে জল চলে এলো। সে তার স্ত্রীর কপালে আলতো চুমু খেয়ে বললো, “আমি তোমাকে প্রমিস করছি, আর কোনোদিন তোমাকে দুঃখ দিবোনা। সারাটাজীবন ভালোবেসে কাটিয়ে দিতে চাই।”

মহান আল্লাহ তায়ালা প্রতিটি দাম্পত্য জীবনকে ভালবাসায় ভরিয়ে দিক। আর আমরা যারা বিয়ে করিনি, তাদেরকে একজন আদর্শ জীবনসঙ্গী দান করুক। (আমিন)

Leave a Comment

somproti.com

FREE
VIEW